Breaking News
Home >> Breaking News >> আমাদের মারবেন না, আমরা মরলে আপনাদের অক্সিজেন দেবে কে 

আমাদের মারবেন না, আমরা মরলে আপনাদের অক্সিজেন দেবে কে 

লিখেছেন স্টিং নিউজের বিশিষ্ট সাংবাদিক কল্যাণ অধিকারী।

কল্যাণ অধিকারী, স্টিং নিউজ: মা বড্ড কষ্ট হচ্ছে যে। গা যেন জ্বলে যাচ্ছে। অহস্য লাগছে থাকতে। একটু ছায়া দিতে বলোনা ওই সূর্য মামাকে। একটু অপেক্ষা কর কিছু সময় পরেই রোদ চলে যাবে। শুনব না আমি। সেই কখন থেকে এই কথাটাই বলে যাচ্ছ তুমি।

মাটির বহু নিচে জল তুলে আনতে গিয়ে প্রতিটা দিন প্রতিটা রাত কঠিন পরিশ্রম করতে হয়। প্রচন্ড গরমে দাঁড়িয়ে থাকতে গিয়ে ক্লান্ত হয়ে যায় শরীর। সূক্ষ শেকড় শক্ত মাটি ভেদ করে প্রবেশ করতে কষ্ট পায়। সন্তানের কথা ভেবে ডাল ছড়িয়ে ছাওয়া দিতে মাটির বহু নিচে থেকে জল শুষে আনতেই হয়।

দিনের পর দিন সূর্যের প্রখরতা বাড়ছে। বাতাসে মিশছে কালো ধোঁয়া । সবুজ পাতা পারছে না সবুজতা রাখতে। তবুও অক্সিজেন ছাড়তেই হবে ওই মনুষ্য জাতির জন্য। হ্যাঁ জানি ওরাই আমাদের নিধন করে চলেছে দিনের পর দিন। তবুও আমরা মুখ বুজে থাকতে পারিনা। চেষ্টা করি ডালপালা নেড়ে নির্মল বাতাস দেবার।

মাটির তলা থেকে খাবার তুলে আনতে দম বন্ধ হয়ে যাবার জোগাড়। বিষাক্ত জল মাটির ভিতর প্রবেশ করে খাদ্যের অভাব ঘটাচ্ছে। তবুও মিলিত হয়ে পাতার ফাঁক গলে বসন্তের ফুল ফুটছে। সন্তানের জন্ম হচ্ছে। সূর্যের প্রখর রোদ সন্তানদের বাঁচাতে কঠিন লড়াই চালাতে হচ্ছে। বৃষ্টি সে তো আসলেও যাবার জন্য বেশি ব্যস্ত।

আমাদের সন্তান কষ্ট পেলেও আপনাদের সন্তানদের আরাম দিতে প্রাণপণ লড়াই চালিয়ে যাচ্ছি। সবুজকে বাঁচান। একটি গাছ আপনার সন্তানের প্রাণ বাঁচাতে যথেষ্ট।

এছাড়াও চেক করুন

পশ্চিম মেদিনীপুরের লোহাটিকরীতে উল্টে গেল একটি সরকারি বাস

কা‌র্তিক গুহ, ‌স্টিং নিউজ, পশ্চিম মেদিনীপুর :- পশ্চিম মেদিনীপুরের গুড়গুড়িপাল থানার অন্তর্গত লোহাটিকরীতে উল্টে গেল …

Leave a Reply

Your email address will not be published.