Breaking News
Home >> Breaking News >> রূপশ্রী প্রকল্পের টাকা হাতাতে স্ত্রীকে খুন করার অভিযোগ

রূপশ্রী প্রকল্পের টাকা হাতাতে স্ত্রীকে খুন করার অভিযোগ

মনি ভট্টাচার্য্য: সদ্য বিবাহিত স্ত্রীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ঢুকেছে মুখ্যমন্ত্রীর রূপশ্রী প্রকল্পের কড়কড়ে ২৫ হাজার টাকা। সেই টাকা হাতাতে গেলে বাধা দেয় গৃহবধু। অবশেষে অবাধ্য বৌমাকে শিক্ষা দিতে তাঁকে শ্বাসরোধ করে খুন করার পর ঝুলিয়ে দিল শ্বশুরবাড়ির লোকেরা, এমনটাই অভিযোগ।

 

এমনই চাঞ্চল্যকর ঘটনার সাক্ষী থাকল উত্তর ২৪ পরগণার দত্তপুকুর থানার কাশিমপুর গ্রামের বাসিন্দারা। তবে গৃহবধূর পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে অভিযুক্ত স্বামী ও শ্বাশুড়িকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

পুলিশ ও স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, মাত্র ৩ মাস আগেই ধূমধাম করে বিয়ে হয়েছিল হাবড়ার জশুর এলাকার পিয়ালী দাস ও দত্তপুকুর থানার কাশিমপুরের দেবব্রত চন্দের সঙ্গে। বিয়ের সময় পাত্রপক্ষের দাবী ছিল নগদ ৪০ হাজার টাকা। কিন্তু সেই টাকা সময় মতো জোগাড় করে উঠতে পারেননি পিয়ালীর পরিবার।

আর তার জেরেই মেয়েটির ওপর কারণে-অকারণে শুরু হয় মারধর, অত্যাচার। ইতিমধ্যে জানাজানি হয়ে যায়, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের “রূপশ্রী” প্রকল্পের আওতায় পিয়ালীর  ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে ঢুকেছে ২৫ হাজার টাকা।

কথাটা পাঁচকান হতেই লাগাম ছাড়া হয়ে যায় তাঁর শ্বাশুড়ি, স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির লোকেরা। ওই টাকা স্বামীর ব্যাঙ্ক অ্যাকাউন্টে তুলে দেওয়ার জন্য পিয়ালীর ওপরে শুরু হয়ে যায় মারাত্মক অত্যাচার। গত কয়েকদিন মেয়েটিকে তাঁর বাপের বাড়ির সঙ্গে ঠিক মতো যোগাযোগ করতেও দেওয়া হয়নি।

এরপর গত শুক্রবার সকাল থেকে মেয়েটির ওপরে শুরু হয় অত্যাচার। সেই অত্যাচার মাত্রা ছাড়ায় রাতে। পিয়ালীকে মেরে ঝুলিয়ে দেওয়া হয় ঘরের মধ্যে। পরে শনিবার সকালে গ্রামের লোকেদের ডেকে দেখায় মেয়েটি গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করার চেষ্টা করেছে।

পরে মৃত পিয়ালীকে জেলা সদর বারাসত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয় শনিবার। সেদিন হাসপাতাল থেকেই খবর পান পিয়ালীর বাপের বাড়ির লোকেরা। গোটা ঘটনা জানার পরেই তাঁরা দত্তপুকুর থানায় পিয়ালীর স্বামী সহ শ্বশুরবাড়ির লোকেদের বিরুদ্ধে খুনের মামলা দায়ের করেন।

রবিবার আটক করা হয় পিয়ালীর শ্বাশুড়িকে। তবে এই ঘটনার পর থেকেই গা ঢাকা দেয় পিয়ালীর স্বামী দেবব্রত। বুধবার রাতে তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ। বৃহস্পতিবার দেবব্রত ও তাঁর মা’কে বারাসত আদালতে তোলা হলে বিচারক তাঁদের পুলিশ হেফাজতের নির্দেশ দিয়েছেন বলে পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

এছাড়াও চেক করুন

কলকাতার এনআরএস হাসপাতালে জুনিয়ার চিকিৎসকদের কর্মবিরতি না মিটতেই, চিকিৎসা কর্মীকে মারধরের অভিযোগ দক্ষিন দিনাজপুর জেলা হাসপাতালে

শিবশংকর চ্যাটার্জ্জী, স্টিং নিউজ, দক্ষিন দিনাজপুর: কলকাতার এনআরএস হাসপাতালে জুনিয়ার চিকিৎসকদের কর্মবিরতি না মিটতেই চিকিৎসা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.