Breaking News
Home >> Breaking News >> ফের তৃণমূলের দুই গোষ্ঠী সংঘর্ষে ফের উত্তপ্ত দিনহাটা

ফের তৃণমূলের দুই গোষ্ঠী সংঘর্ষে ফের উত্তপ্ত দিনহাটা

মনিরুল হক, কোচবিহার: তৃণমূলের দুই গোষ্ঠীসংঘর্ষে ফের উত্তপ্ত হয়ে উঠল দিনহাটা। ঘটনাটি ঘটেছে দিনহাটা ১ নং ব্লকের পেটলা বাজার এলাকায়। ওই ঘটনায় জেরে আহত হয়েছে এক মহিলা সহ ২ জন। এর পাশাপাশি বোমাবাজিও চলে এলাকায় বলে অভিযোগ। আহতদের উদ্ধার করে স্থানীয়রা দিনাহাটা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় পুলিশ। গোটা ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে দিনহাটা থানার পুলিশ।

পুলিশ সূত্রে জানা যায়, আক্রান্ত ওই তিনজনের নাম রিতা মন্ডল ওঝা (৩০), আইয়ুব হোসেন (২২)। তাদের বাড়ি পেটলা বাজার এলাকায়। জানা গেছে, তৃণমূল যুব কংগ্রেসের কোচবিহার জেলার সাধারন সম্পাদক নিশীথ প্রামাণিকের সংগঠনের পথ থেকে বহিষ্কার হওয়ার পর দিনহাটার বিভিন্ন এলাকায় উত্তেজনা সৃষ্টি হয়। এদিন রাতে নিশীথ প্রামাণিকের অনুগামীরা

তৃণমূল যুব কংগ্রেস গোষ্ঠী দখলে থাকা পেটলা বাজারে পার্টি অফিসে বসে ছিল বেশ কিছু কর্মী-সমর্থক। এমন সময় মাদার গোষ্ঠীর একদল কর্মী সমর্থক অফিসেটিকে দখল করার জন্য আসে। সেই সময় উভয় গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষ বাধে। এক গোষ্ঠী অপর গোষ্ঠীকে লক্ষ্য করে রীতিমতো লাঠিসোটা ইট পাটকেল নিয়ে আক্রমণ করে বলে অভিযোগ। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে যায় পুলিশ। ওই ঘটনায় আহত হয় ২ জন তাদেরকে উদ্ধার করে দিনহাটা মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

হাসপাতালের বেডে শুয়ে আক্রান্ত রিতা মন্ডল ওঝা ও আইয়ুব হোসেন বলেন, এদিন রাতে আমরা যখন অফিসে বসে ছিলাম। সেই সময় মাদার গোষ্ঠীর কয়েকজন অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে আমাদের উপর আক্রমণ চালায়। এতে প্রায় ৮-১০ জন আহত হয়। দিনহাটা ১ নং ব্লকের তৃণমূল যুব কংগ্রেসের আহ্বায়ক নারায়ণ শর্মা বলেন, “তৃণমূল দলের মধ্যে কিছু দুষ্কৃতী রয়েছে তারা এই ঘটনা ঘটিয়েছে।”

এবিষয় নিয়ে দিনহাটা ১ নং ব্লক তৃণমূল কংগ্রসের সভাপতি নূর আলম হোসেন বলেন, “গতকাল রাতে যা ঘটেছে তা তারা নিজেরাই নিজেদের মধ্যে ঝগড়া করে তৃণমূলের ঘাড়ে দোষ চাপাচ্ছে। ওরা যে অভিযোগ করছে তার মিথ্যে। যুব তৃণমূলের সঙ্গে তৃণমূলের কোন বিবাদ নেই। যারা দলের মধ্যে থেকে বিভেদ করার চক্রান্ত করেছিল তাদেরকে দল থেকে বহিষ্কার করেছে নেতৃত্বরা।”

প্রসঙ্গত, গত পঞ্চায়েত নির্বাচনের আগে থেকেই তৃণমূল কংগ্রেসের সাথে তৃণমূল যুবদের মধ্যে একটা বিরোধ চলছে দিনহাটায়। কিছু কিছু এলাকায় ক্রমশ কোণঠাসা হয়ে পড়ছিল তৃণমূল। এই পরিস্থিতিতে শুক্রবার রাতে কোচবিহার জেলার তৃণমূল যুব কংগ্রেসের সভাপতি তথা সাংসদ পার্থপ্রতিম রায় তার ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়ে তৃণমূল যুব কংগ্রসের সাধারন সম্পাদক নিশীথ প্রামাণিকে বহিষ্কারের করেন।

সেই খবর জানাজানি হতেই তৃণমূল যুব কংগ্রেসের পার্টি অফিস দখল করতে যায় তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী সমর্থকরা। এরপরই শনিবার থেকে গোটা কোচবিহার জেলার বিভিন্ন এলাকায় বোমাবাজি শুরু হয়। দুই গোষ্ঠীর মধ্যে সংঘর্ষও বাধে বলে রাজনৈতিক মহলের ধারনা।

এছাড়াও চেক করুন

পূর্ব-বর্ধমানে সোশ্যাল মিড়িয়া গ্রুপদের নিয়ে সভা করলেন তৃণমূল প্রার্থী সুনীল মণ্ডল

গৌরনাথ চক্রবর্ত্তী,‌স্টিং নিউজ, কাটোয়া ঃ আগামী ২৯ এপ্রিল বর্ধমান পূর্ব লোকসভা ভোট।তারই প্রস্তুতি হিসাবে বর্ধমান …

Leave a Reply

Your email address will not be published.