Breaking News
Home >> Breaking News >> বোটানিক্যাল গার্ডেনের লেকে মাছের মড়ক, আবর্জনার কারণে অভিযোগ প্রাতঃভ্রমণকারীদের

বোটানিক্যাল গার্ডেনের লেকে মাছের মড়ক, আবর্জনার কারণে অভিযোগ প্রাতঃভ্রমণকারীদের

কল্যাণ অধিকারী, স্টিং নিউজ, হাওড়াঃ বোটানিক্যাল গার্ডেনের লেকে ফের মাছের মড়ক। এই ঘটনা প্রথম নয় এর আগেও বেশ কয়েকবার এই ভাবে মাছের মড়কের অভিযোগ উঠেছিল আচার্য জগদীশ চন্দ্র বোটানিক্যাল গার্ডেনে।

এর আগে মাছের মড়ক নিয়ে হাইকোর্টে মামলাও হয়েছে। তবুও একি ঘটনার পুনরাবৃত্তি হয়েছে শনিবার। পর্যটক ও প্রাতঃভ্রমণ কারীদের অভিযোগ, বাগান কর্তৃপক্ষ ঠিক মতো জলাশয়ের রক্ষনা বেক্ষন না করবার জন্য এই ঘটনা বারবার ঘটছে। অন্য দিকে বাগান কর্তৃপক্ষের দাবি প্রাতঃভ্রমণ কারি ও পর্যটকদের দিকে। তাঁদের কথায় পাউরুটি, বিস্কুট, মুড়ি জলাশয় ফেলছে যার জেরে জল নষ্ট হচ্ছে। এমনকি আবহাওয়ার জন্যেও কিছু মাছের মৃত্যু হয়ে থাকতে পারে। তবে এ দিনের ঘটনার পর জলাশয় গুলি পরিষ্কারের কাজ শুরু করেছে বাগান কর্তৃপক্ষ।

বাগান সূত্রে জানা গেছে, মোট ২৪ টি জলাশয় রয়েছে বাগান জুড়ে। এক সময় প্রত্যেকটি লেকের সাথে গঙ্গার একটি সংযোগ ছিল। মূলত জোয়ারের সময় বাগানের একটি লক গেট রয়েছে যেটি খুলে দেওয়া হতো। প্রতিদিন লেকের জল রি সাইকেলিন হতো। দীর্ঘদিন ধরে সেই লক গেটটি খারাপ হয়ে আছে। সেটিকে সারানোর বিষয় জানানো হলেও সরকারি উদ্যেগ পাওয়া যায়নি। সেই কারনেই লেকের জল দীর্ঘদিন ধরে একই অবস্থায় পরে রয়েছে।

বাগানের ভিতর অবহেলার ছবি ধরা পড়েছে। কচুরিপানায় ঢেকেছে গোটা জলাশয়। দেখে বোঝাই সম্ভব নয় যে আদৌ এটা জলাশয় না সবুজ মাঠ। জলাশয় ভাসছে প্ল্যাস্টিকের জলের বোতল। ঠান্ডা পানীয়র বোতল। নিয়ম বলছে বাগানে প্লাস্টিক বোতল বা প্যাকেট নিয়ে বাগানে প্রবেশ নিষেধ। নিরাপত্তার অভৱেই অনায়াসে বাগানে ঢুকছে এই সব আবর্জনা।

বাগান কর্তৃপক্ষের দাবি, আগামী এক থেকে দুমাসের মধ্যেই আধুনিক মেশিন চলে আসছে পরিষ্কারের জন্যে সে ক্ষত্রে আবর্জনা জমলেও তা দ্রুত পরিষ্কার করা যাবে।

এছাড়াও চেক করুন

তৃণমূল কংগ্রেস কে তিনি “ভীতু” বলে কটাক্ষ ভারতী ঘোষের

কার্তিক গুহ, পশ্চিম মেদিনীপুর: “কেশপুরে তৃণমূল আমাদের ভয় পেয়েছে। তাই আমাদের আটকানোর জন্য সর্বতোভাবে চেষ্টা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.