Breaking News
Home >> Breaking News >> লোকসভা ভোটের আগে উলুবেড়িয়ায় তৃণমূল কর্মী খুন, অভিযোগ বিজেপির দিকে

লোকসভা ভোটের আগে উলুবেড়িয়ায় তৃণমূল কর্মী খুন, অভিযোগ বিজেপির দিকে

কল্যাণ অধিকারী, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, হাওড়া:লোকসভা ভোটের আগে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মী খুনের ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে উঠলো উলুবেড়িয়া। মৃত ব্যক্তি যে তাদের কর্মী এ কথা জেলা তৃণমূল জানিয়েছে। কিন্তু কে খুন করেছে তৃণমূল কংগ্রেস কর্মীকে এই নিয়ে দিনভর বাক বিতন্ডায় তৃণমূল ও বিজেপি। তৃণমূলের নিশানায় বিজেপি। এটা গোষ্ঠীদ্বন্দ্ব বলে পাল্টা বিজেপি। মৃত ব্যক্তির নাম গোবিন্দ প্রামাণিক ৩৫। বাড়ি উলুবেড়িয়া কমলাচক গ্রামে।

শিয়রে লোকসভা নির্বাচন। প্রার্থী দের নিয়ে জোড়ালো প্রচার শুরু হয়েছে। বিজেপি’র প্রার্থী তালিকা প্রকাশ না হলেও হুংকার দেওয়া হচ্ছিল। এর মাঝেই অটোচালক তৃণমূল কর্মী গোবিন্দ প্রামাণিক’কে রাস্তায় ফেলে বেধড়ক মারধর করার অভিযোগ ওঠে। উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলেও বাঁচানো সম্ভব হয়নি। ঘটনায় একাধিক ব্যক্তি জড়িত বলে সন্দেহ। ঘটনাটি যেহেতু লোকসভা নির্বাচনের আগে ঘটেছে ফলে রাজনৈতিক রঙ লাগতে বেশি সময় নেয়নি।

উলুবেড়িয়া দক্ষিণ কেন্দ্রের বিধায়ক তথা হাওড়া গ্রামীণ তৃণমূল কংগ্রেস সভাপতি পুলক রায় জানান, গোবিন্দ প্রামানিক প্রথমদিন থেকে তৃণমূল করে আসছে। পরিকল্পিত ভাবে বিজেপি নেতা কর্মীরা মিলে ওকে নৃশংসভাবে খুন করেছে। ভোটের আগে এলাকায় রাজনৈতিক হানাহানি করতে চাইছে বিজেপি। পরবারের পক্ষ থেকে এফআইআর করেছে। জড়িত বিজেপি কর্মীদের শাস্তি চাই।

কে এই গোবিন্দ প্রামাণিক?

স্থানীয় সূত্রে খবর, রাজাপুর থানার কমলাচক গ্রামের বাসিন্দা গোবিন্দ প্রামাণিক। পেশায় অটোচালক। রাজনৈতিক পরিচয় বুথ স্তরের তৃণমূল কর্মী। ভোটের প্রচারেও কাজ করেছে। পেশার কাজ অটো চালিয়ে বাড়ি ফিরবার সময় পথ আটকায় কয়েকজন দুস্কৃতি। তারপর অটো থেকে নামিয়ে লাঠি ও অস্ত্র দিয়ে বেধড়ক মারধোর করা হয়। স্থানীয়দের দেখে পালিয়ে যায় দুস্কৃতিরা। রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে আসা হয়। কিন্তু ততক্ষণে মৃত্যু হয়েছে। ঘটনার খবর ছড়াতেই গোবিন্দর বাড়িতে চলে আসে বহু তৃণমূল কর্মী।

গোবিন্দ’কে কদিন ধরে হুমকি দেওয়া হচ্ছিল তা পরিবারের পক্ষ থেকে জানা গেছে। তাঁদের অভিযোগ ওকে বিজেপি কর্মীরা খুন করেছে। এই বিষয় জানিয়ে রাজাপুর থানায় একটি খুনের অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে। সামনে নির্বাচন তার আগে গোবিন্দ কে সরিয়ে দিয়ে এলাকায় আতঙ্কের বাতাবরণ তৈরির চেষ্টা করছে বিজেপি।

রাজাপুর থানা ময়নাতদন্ত এর জন্য দেহ পাঠিয়েছে। কিভাবে খুন করা হয়েছে তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। খুনে স্থানীয়রা জড়িত আছে কি তাও খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

এছাড়াও চেক করুন

বকেয়া টাকা না মেলায় কাজে যোগ দিলেন না বাগানের শ্রমিকরা

শোভন মজুমদার, স্টিং নিউজ করেসপন্ডেন্ট, আলিপুরদুয়ার: বেতন বাকি, তাই কাজে যুক্ত হলো না বাগানের শ্রমিকরা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.