Breaking News
Home >> Breaking News >> পূর্ব মেদিনীপুরে প্রচারে ব্যস্ত বিজেপি

পূর্ব মেদিনীপুরে প্রচারে ব্যস্ত বিজেপি

প্রসূন ব্যানার্জী,তমলুকঃ আগামী ১২ ই মে লোকসভা নির্বাচন।তৃনমূলের প্রার্থীতালিকা অনেক আগেই প্রকাশিত হয়েগেছে।দেওয়াল লিখনও প্রায় শেষের পথে।প্রচার ও সভার কাজ অনেক জায়গায়,শুরুও হয়ে গেছে।পাশাপাশি বিরোধী দলগুলি প্রচার ও প্রার্থী নির্বাচনের ক্ষেত্রে বেশকিছুটা ব্যাকফুটে।পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় মূলত দুটি লোকসভা কেন্দ্র।

এর মধ্যে তমলুকের বিজেপি প্রার্থী সিদ্ধার্থ নস্করের নাম ঘোষনা হলেও কাঁথি লোকসভার প্রার্থীর নাম এখনো ঘোষনা হয়নি।তবে সিপিআই এম জেলার দুটি লোকসভা কেন্দ্রের প্রার্থী যথারীতি ঘোষনা করেছে।কাঁথি লোকসভায় পরিতোষ পট্টনায়েক ও তমলুক লোকসভায় ইব্রাহিম আলি।তবে তমলুকের বিজেপি প্রার্থী সিদ্ধার্থ নস্করকে নিয়ে দলীয় কিছুকিছু স্তরে ক্ষোভ বিক্ষোভ রয়েছে।মূলতো তিনি জেলার নেতৃত্ব নয়।সুদুর নদীয়া থেকে এই তমলুক লোকসভায় প্রার্থী করা হয়েছে।তবে জেলা বিজেপি নেতৃত্বের বক্তব্য, এটা কোন বিষয় নয়।প্রার্থী যেখান থেকেই আসুকনা কেনো,সারা দেশে ভোট হবে প্রধান মন্ত্রী মোদীকে দেখেই।রবিবার সকালে পূর্ব মেদিনীপুরে প্রথম প্রচারে এলেন বিজেপি প্রার্থী সিদ্ধার্থ নস্কর।জানাগেছে এদিন প্রথমে কোলাঘাটে তাকে দলীয় কর্মীরা সম্মর্দ্ধনাজ্ঞাপন করেন।তারপর তমলুকে দেবী বর্গভীমা মন্দিরে পূজো দেন।এরপর জেলার দলীয় পার্টিঅফিস কাকগাছিয়াতে জেলা নেতাকর্মীদের সাথে আলোচনায় বসেন।তারপর চন্ডীপুরে একটি কর্মীসভায় যোগদেন।সবমিলিয়ে রবিবার ছুটির দিনে প্রথম এইভাবেই প্রচার ও জনসংযোগ বাড়ান।এদিন সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে জানান,আমায় বহিরাগত কে বলছে জানিনা।তবে আমি জিতলে এখানেই বসবাস করবো।মানুষের পাশে থাকবো।সারাদেশে এখন একটাই ঝড় তা হল মোদী ঝড়।তিনি বলেন, এই তৃনমূল দল এখন খুব ভয় পেয়েছে।কারন কালিঘাট ও পূর্ব মেদিনীপুরে যে পরিবার তন্ত্র চলছিলো তা ভারতীয় জনতা পার্টির কর্মীরা ঐক্যবদ্ধভাবে নেমেপড়েছেন ভাঙবার জন্যে।এই কারনেই তৃনমূল প্রথমেই ভয় পেয়েছে।তিনি আরোবলেন,এতোদিন রাজ্যে যে রাজত্ব চলছিলো তা ধাপ্পাবাজীর মধ্য দিয়ে।শুধু মিথ্যা প্রতিশ্রুতি দিয়ে আসছিলো রাজ্যের সাধারন মানুষকে।আমাদের প্রথম কাজ হবে এই মিথ্যে প্রতিশ্রুতির গল্প ভেঙে দেওয়া।নরেন্দ্র মোদী যে স্রোত বাঙলার দিকে আনতে চলেছে তা একটা বালির বাঁধ দিয়ে আটকে রেখেদিয়েছে তৃনমূল।তবে এটা যে বালির বাঁধদিয়ে রাখা হয়েছে তা তৃনমূল জানেনা।

তবে এই নির্বাচনে এই বালির বাঁধ ভেঙে নতুন করে তমলুককে সাজিয়ে তোলাই হবে আমার একমাত্র কাজ বলে জানান সিদ্ধার্থ বাবু।প্রথমদিন জেলায় এসেই তৃনমূলকে একহাত নিয়ে বলেন, পুলওয়ামায় জঙ্গীহানায় ভারতীয় সেনা মারা গেলো।তার পত্যুত্তরে দেশের সেনারা সার্জিক্যাল স্ট্রাইক করলো।আর এই সেনাদের নিয়ে যখন মূখ্যমন্ত্রী প্রশ্নতোললেন কতজন মারাগেলো জঙ্গি তার হিসাব দাও।সৈন্যকে নিয়ে যারা রাজনীতি করে তাদের আমরা বিজেপির পক্ষ্য থেকে যেমন ধিক্কার জানাই।আর এটাই আমাদের নির্বাচনে প্রধান ইস্যু বলেও জানান সিদ্ধার্থ বাবু।আর এই কারনেই নরেন্দ্র মোদীর নেতৃত্বে সারা ভারতে বিজেপির বিজয়রথ আসতে চলেছে, জেলায় পাদিয়ে প্রথম দিনই এভাবেই আক্রমন সানলেন তমলুক লোকসভার বিজেপির প্রার্থী সিদ্ধার্থ নস্কর।

এছাড়াও চেক করুন

চাকরির টোপ দিয়ে ২ কোটি টাকা প্রতারণার অভিযোগ

নিজস্ব সংবাদদাতা, কলকাতা: ট্রাইবাল ডেভলপমেন্টের ভুয়ো ওয়েবসাইট খুলে ২ কোটি টাকার প্রতারণার দায়ে গ্রেফতার ২ …

Leave a Reply

Your email address will not be published.