Breaking News
Home >> Breaking News >> নাট্যব্যাক্তিত্ব সাংসদের আমলে স্বাস্থ্য ফেরেনি নাট্যমঞ্চের

নাট্যব্যাক্তিত্ব সাংসদের আমলে স্বাস্থ্য ফেরেনি নাট্যমঞ্চের

শিব শংকর চ্যাটার্জ্জী, দক্ষিন দিনাজপুরঃ
নাট্যব্যাক্তিত্ব সাংসদের আমলে স্বাস্থ্য ফেরেনি নাট্যমঞ্চের। একদা নাট্যকর্মীদের নাটকের কাজে ব্যবহৃত হওয়া ভগ্ন দশাগ্রস্থ নাট্য মঞ্চ আজ সবুজসাথি প্রকল্পের সাইকেল তৈরীর অস্থায়ী কারখানা। নাটুমঞ্চের এই বেহাল দশা অন্য কথাও নয় খোদ নাট্যব্যক্তিত্ব সাংসদ অর্পিতা ঘোষের বালুরঘাট লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত কুমারগঞ্জ ব্লকের ৪নম্বর রামকৃষ্ণ পুর গ্রামপঞ্চায়েতের গোপালগঞ্জ এলাকায়।

স্থানীয় সূত্রে জানা যায় রামকৃষ্ণ পুর গ্রাম পঞ্চায়েত এলাকার নাট্য তথা সংস্কৃতি প্রেমী মানুষদের কথা চিন্তা ভাবনা করে সংস্কৃতি চর্চার কেন্দ্র হিসাবে ১৯৮০দশকে তৎকালীন কুমারগঞ্জ ব্লকের বিডিও বলঅরাম দাস এর আমলে তিনারই নেতৃত্বে সরকারি খরচে নির্মিত হয়েছিল এই নাট্যমঞ্চটি। নাট্যমঞ্চটি নির্মিত হবার পর সরকারি বিভিন্ন অনুষ্ঠানের পাশাপাশি এলাকার ক্লাবগুলির সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং এলাকার নাট্যকর্মীদের নাট্যচর্চা ও এই মঞ্চে করা হতবলে জানাযায়। বর্তমানে বেহাল তবিয়তে থাকা নাট্যমঞ্চটি সবুজ সাথি প্রকল্পের সাইকেল তৈরীর কারখানায় পরিনত হয়েছে বলে অভিযোগ সকলের। নাট্যমঞ্চে গজিয়েছে বিশাল বিশাল বটের গাছ সহ আগাছা। ফাটল ধরেছে মঞ্চের গায়ে। শুধুমাত্র রক্ষনা বেক্ষনের অভাবে।শিকেয় উঠেছে নাট্য কর্মীদের নাট্যচর্চা।তবে মাঝে মধ্যে সাইকেল তৈরীর জন্য টিন দিয়ে ঘেড়া নাট্য মঞ্চের ঘেরাটপের বাইরে স্থানীয়রা নিজেদের উদ্যোগে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করতে হলে প্যন্ডেল ভাড়া করে নিজেদের গ্যাঁটের টাকা খরচ করে অনুষ্ঠান চালাতে হয় বলে জানান সকলে। গত লোকসভা নির্বাচনের পুর্বে নাট্যব্যক্তিত্ব অর্পিতা ঘোষ এর ৫বছরের কাজ নিয়ে যখন চুলচেড়া বিশ্লেশন চলছে সেই সময় রামকৃষনপুর গ্রাম্পঞ্চায়েতের বাসিন্দারা জানান আমরা ভেবেছিলাম নাট্য ব্যক্তিত্ব সাংসদ হলে আমাদের নাট্য মঞ্চটির কিছু উন্নতি হবে কিন্তু সাংসদ হবার পর সেই ভাবে নাট্য মঞ্চের উন্নতি দুরের কথা এলাকায় সেই ভাবে দেখাই যায়নি তাকে এইভাবেই ক্ষোব উগড়ে দেন বাসিন্দারা। অপর দিকে নাট্য মঞ্চে অস্থায়ী সাইকেল কারখানা বানানোর কারনে প্রতিবাদের সুর বিরোধী রাজনৈতিক দলের গলায়। এই ইস্যুই তুলে প্রচারে নামবেন বলে দাবী জানান বিজেপি নেতা রজত ঘোষ।

এখন দেখার ভোট গননার পর কে জেতেন, বিরোধীরা না সাংসদ। কতটা পাল্লা ভাড়ি করতে পারে বিরোধিরা।

এছাড়াও চেক করুন

তৃণমূল কংগ্রেস কে তিনি “ভীতু” বলে কটাক্ষ ভারতী ঘোষের

কার্তিক গুহ, পশ্চিম মেদিনীপুর: “কেশপুরে তৃণমূল আমাদের ভয় পেয়েছে। তাই আমাদের আটকানোর জন্য সর্বতোভাবে চেষ্টা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.