Breaking News
Home >> Breaking News >> প্রথম দফায় কোচবিহার কেন্দ্রেই কঠিন লড়াইয়ে তৃণমূল বনাম বিজেপি, বাকি ক’দিন প্রচার যেন টি-২০

প্রথম দফায় কোচবিহার কেন্দ্রেই কঠিন লড়াইয়ে তৃণমূল বনাম বিজেপি, বাকি ক’দিন প্রচার যেন টি-২০

মনিরুল হক, কোচবিহারঃ আসন্ন লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে প্রথম দফার ভোট হবে ১১ এপ্রিল। দেশের আরও বেশ কিছু আসনের সাথে এরাজ্যের দুই কেন্দ্র কোচবিহার এবং আলিপুরদুয়ারে প্রথম দফার ভোট গ্রহণ হবে। সোমবার প্রথম দফার ভোটগ্রহণের জন্য মনোনয়ন জমা দেওয়ার শেষ দিন। এদিন এই কেন্দ্রে বিজেপি প্রার্থী নিশীথ প্রামাণিক মনোনয়নপত্র জমা দেন। এর আগেই তৃণমূল কংগ্রেস প্রার্থী পরেশ অধিকারী, বামফ্রন্ট মনোনীত ফরোয়ার্ড ব্লক প্রার্থী গোবিন্দ রায়, কংগ্রেস প্রার্থী পিয়া রায় চৌধুরী, হরেকৃষ্ণ সরকার (নির্দল), কেপিপি ইউ কংসরাজ বর্মন, এসইউসিআই প্রভাত রায়। এবছর কোচবিহার জেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ২২ লক্ষ ৫১ হাজার ২৫৫ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটারের সংখ্যা ১১ লক্ষ ৬৯ হাজার তিনশো ৭১ জন। এবং মহিলা ভোটারের সংখ্যা ১০ লক্ষ ৮১ হাজার ৮৬৩ জন। এছাড়াও তৃতীয় লিঙ্গের ভোটারের সংখ্যা ২১ জন। জেলায় মোট ভোট গ্রহণ কেন্দ্র ২ হাজার ৪৯৭টি।

কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্র জেলার ৭ বিধানসভা নিয়ে গঠিত হয়েছে। মেখলিগঞ্জ বিধানসভা জলপাইগুড়ি লোকসভা কেন্দ্রে ও তুফানগঞ্জ বিধানসভা আলিপুরদুয়ার লোকসভা কেন্দ্রে পড়েছে। কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রে মোট ভোটারের সংখ্যা ১৮ লক্ষ ৯ হাজার পাঁচশো ৯৮ জন। এর মধ্যে পুরুষ ভোটারের সংখ্যা ৯ লক্ষ ৪০ হাজার ৯৪৮ জন এবং মহিলা ভোটারের সংখ্যা ৮ লক্ষ ৬৮ হাজার ৬৩২ জন। এবং তৃতীয় লিঙ্গের ভোটারের সংখ্যা ১৮ জন। কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রে নতুন ভোটারের সংখ্যা ৪৮ হাজার ৪৬ জন।
২০১৬ সালে কোচবিহার লোকসভা কেন্দ্রে উপনির্বাচনে তৃণমূলের প্রার্থী পার্থপ্রতিম রায় ভোট পেয়েছিলেন ৭ লক্ষ ৯৪ হাজার ৩৭৫টি। বিজেপি প্রার্থী হেমচন্দ্র বর্মণ পেয়েছিলেন ৩ লক্ষ ৮১ হাজার ১৩৪টি। বামফ্রন্টের প্রার্থী নৃপেন্দ্র নাথ রায় ভোট পেয়েছিলেন ৮৭ হাজার ৩৬৩টি। আমরা বাঙ্গালীর প্রার্থী সুবোধ বর্মণ ৯ হাজার ৪৩৪টি ভোট, কেপিপি প্রার্থী কংস রাজ রায় ৮ হাজার ৩৩৬টি ভোট, নির্দল নরেশ চন্দ্র বর্মণ ৭ হাজার ৮৯০টি ভোট, এসইউসিআই প্রার্থী নৃপেন কার্যী ৫ হাজার ৬৯৩টি ভোট, নির্দল প্রার্থী নির্মল কুমার রায় ৪ হাজার ৬১৭টি ভোট, ওয়েল ফেয়ার পার্টি প্রার্থী ধনঞ্জয় বর্মণ ৩ হাজার ৭২৫টি ভোট পেয়েছিলেন। নোটায় ভোট পড়েছিল ৯ হাজার ৬৮০টি। ২০১৬ সালে তৃণমূল কংগ্রেস তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী বিজেপিকে ৪ লক্ষ ১৩ হাজারেরও বেশি ভোটের ব্যবধানে পরাজয় করেছে। সেই ভোটে বাম-কংগ্রেসের জামানত জব্দ হয়েছে কোচবিহারে। উপনির্বাচনে তৃণমূলের জয়ের ব্যবধান অনেকটা বেড়ে গেলেও বিজেপি নিজের ভোট বাড়িয়ে দ্বিতীয় স্থানে উঠে এসেছে। এবার তাঁরা যে কোচবিহার কেন্দ্রে তৃণমূলকে কঠিন লড়াইয়ের মুখে ফেলবে, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।
প্রসঙ্গত, পশ্চিমবঙ্গে মোট ৭ দফায় লোকসভা নির্বাচন হবে৷ ১৮ এপ্রিল দ্বিতীয় দফায় জলপাইগুড়ি, দার্জিলিং ও রায়গঞ্জে ভোটগ্রহণ। ২৩ এপ্রিল তৃতীয় দফায় পশ্চিমবঙ্গে ভোটগ্রহণ প্রক্রিয়া চলবে বালুরঘাট, মালদহ উত্তর, মালদহ দক্ষিণ, জঙ্গিপুর ও মুর্শিদাবাদে। ২৯ এপ্রিল চতুর্থ দফায় বাংলায় আটটি কেন্দ্র, বহরমপুর, কৃষ্ণনগর, বর্ধমান পূর্ব, বর্ধমান-দুর্গাপুর, রানাঘাট, আসানসোল, বোলপুর, বীরভূমে ভোট৷ ৬ মে পঞ্চম দফায় রাজ্যে ভোট নেওয়া হবে বনগাঁ, ব্যারাকপুর, হাওড়া, উলুবেড়িয়া, শ্রীরামপুর, হুগলি ও আরামবাগে। ১২ মে ষষ্ঠ দফায় তমলুক, কাঁথি, ঘাটাল, মেদিনীপুর, ঝাড়গ্রাম, পুরুলিয়া, বাঁকুড়া, বিষ্ণুপুরে ভোট নেওয়া হবে। ১৯ মে সপ্তম দফায় ভোটগ্রহণ হবে দমদম, বারাসত, বসিরহাট, জয়নগর, মথুরাপুর, ডায়মন্ড হারবার, যাদবপুর, কলকাতা দক্ষিণ, কলকাতা উত্তরে। ভোটগণনা হবে ২৩ মে৷

এছাড়াও চেক করুন

মনোনয়ন জমা দিলেন বিএসপি প্রার্থী অশোক কুমার মুর্মু

কার্তিক গুহ, ঝাড়গ্রাম : শনিবার দুপুরে মনোনয়ন পত্র জমা দিলেন বিএসপি প্রার্থী অশোক কুমার মুর্মু। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.