Breaking News
Home >> Breaking News >> এই গরমের দুপুরে এসি রেস্তোরায় পান্তাভাত

এই গরমের দুপুরে এসি রেস্তোরায় পান্তাভাত

সুমন করাতি,হুগলি: গল্পের বইয়ের পাতায় পান্তাবুড়ি থেকে শুরু করে প্রয়াত বিশ্বশ্রী মনোহর আইচ।পান্তাভাত এর রেসিপি তে মজেছেন অনেকেই।গ্রামবাংলার বহুমানুষ গরমে পান্তাভাত খেয়ে কাজে বেরোন।এতে মাঠে ঘাটে চড়া রোদ এ কাজ করতে সুবিধা হয় বলে তাদের দাবি।পুষ্টিবিদরাও সেই দাবি উড়িয়ে দেন না।ফলে গরম কাল জুড়ে এক এক জায়গায় এক এক কায়দায় তৈরি পান্তা বাঙালির পাতে দিব্বি জায়গা করে নিয়েছে।
গেরস্থের হেসেল ছাড়িয়ে সেই পান্তা তৈরি হচ্ছে ও পাওয়া যাচ্ছে ঝা চকচকে রেস্তোরার কিচেন এ।নরম আলোয় মাখা ডাইনিং রুমে চেয়ার টেবিল এ বসে পেঁয়াজ,কাঁচালঙ্কা দিয়ে গোগ্রাসে পান্তা খাচ্ছেন ক্রেতাদুরস্ত অনেকেই।পান্তার আদি অকৃত্রিম স্বাদ পেতে কেউ হাতেই সবার করছেন আবার কেউ বা চামচ এ।বিরিয়ানি,চিকিনলালিপপ এর যুগে বাবা মায়ের হাত ধরে রেস্তোরায় চেটে পুটে পান্তা খেয়ে ঢেকুর তুলছে জেন ওয়াই।
ফনি বিদায় এর পর থেকে গরমে কাহিল বাংলা।মঙ্গল বুধ সন্ধ্যায় বৃষ্টি হলেও বাতাসে আপেক্ষিক আদ্রতা এর সৌজন্যে দুপুরে অস্সস্তি কমলো কই।
এই মরসুম দেখেই দিন কয়েক ধরে দুপুরের মেনু তে পান্তার সংযোজন হয়েছে হুগলি এর শ্রীরামপুর এ একটি রেস্তোরায়।রেস্তোরার কর্ণধার দীপঙ্কর সরকার জানালেন, রাতে ভাত রেঁধে জল ঢেলে ঘরের স্বাভাবিক তাপমাত্রায় রেখে দেয়া হচ্ছে।সকালে ফ্রিজে ঢোকানো হচ্ছে।এরপর দুপুরে পরিবেশন করা হচ্ছে।পান্তার উপরের জলের সঙ্গে ভাসছে কিঞ্চিৎ সরষের তেল।সঙ্গে থাকছে কাঁচালঙ্কা,পেঁয়াজ,গন্ধরাজ লেবু,লবন।পাশের প্লেটে মুচমুচে মোরোলা, কাতলা মাছ ভাজা,আলুর চপ।দাম দেড়শো টাকা।
হাত এর কাছে এই মেনু পেয়ে মানুষ খাচ্ছেও মন ভোরে।অনেকে বলে যাচ্ছেন এত দিন বাড়িতেই পান্তা খাওয়া যেত,এখন বিরিয়ানির যুগে রেস্তোরা তেও তা পেয়ে ভালোই লাগছে।।।।।

এছাড়াও চেক করুন

দুর্নীতির অভিযোগে উত্তাল নদিয়ার চাকদহের ঘেঁটুগাছি গ্রাম পঞ্চায়েত

কমল দত্ত, স্টিং নিউজ, নদিয়াঃ নদিয়ার চাকদহের ঘেঁটুগাছি গ্রাম পঞ্চায়েতে দুর্ণীতির অভিযোগে উত্তালজেপি কর্মীদের বিক্ষোভ। …

Leave a Reply

Your email address will not be published.