Breaking News
Home >> Breaking News >> ফলাফলে রাজ্যে প্রথম পূর্ব মেদিনীপুর,দ্বিতীয় কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ার, একনজরে দেখে নিন মাধ্যমিকের সেরা ১০

ফলাফলে রাজ্যে প্রথম পূর্ব মেদিনীপুর,দ্বিতীয় কোচবিহার ও আলিপুরদুয়ার, একনজরে দেখে নিন মাধ্যমিকের সেরা ১০

মনিরুল হক,স্টিং নিউজ করসপনডেন্ট, পূর্ব মেদিনীপুর: প্রতীক্ষার পর প্রকাশিত হল এবছরের মাধ্যমিকের ফল। ৬৯৪ নম্বর পেয়ে এবছর মাধ্যমিকে প্রথম হয়েছে পূর্ব মেদিনীপুরের সৌগত দাস। ৭০০’র মধ্যে তার প্রাপ্ত নম্বর ৬৯৪। সৌগত মহম্মদপুর দেশপ্রাণ বিদ্যাপীঠের ছাত্র। সকাল ৯টায় সাংবাদিক সম্মেলনে ফল প্রকাশ করল মধ্যশিক্ষা পর্ষদ৷ সকাল ১০টা থেকে দেওয়া হবে মার্কশিট৷ এবছর পাশের হারে সবচেয়ে বেশি পূর্ব মেদিনীপুর৷পাশের হারে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কলকাতা৷ এবছরের মাধ্যমিকে প্রথম দশে কারা কারা রয়েছেন দেখে নিন এক নজরে
১. প্রথম স্থান: পূর্ব মেদিনীপুরের মহম্মদপুর দেশপ্রাণ বিদ্যাপীঠের সৌগত দাশ, প্রাপ্ত নম্বর ৬৯৪৷
২. দ্বিতীয় স্থান: শ্রেয়সী পাল আলিপুরদুয়ার ফলাকাটা হাইস্কুল, প্রাপ্ত নম্বর ৬৯১ ও দেবস্মিতা সাহা ইলাদেবী গার্লস হাইস্কুল, প্রাপ্ত নম্বর ৬৯১৷
৩. তৃতীয় স্থান: রায়গঞ্জ গালর্স হাইস্কুলের ক্যামেলিয়া রায়, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৯ ও নদিয়ার শান্তিপুর মিউনিসিপ্যাল হাইস্কুলের ব্রতীন মণ্ডল, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৯৷
৪. চতুর্থ স্থান: আলিপুরদুয়ার বাড়বিষা হাইস্কুলের অরিত্র সাহা, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৭।
৫. পঞ্চম স্থান: হুগলি কলেজিয়েট স্কুলের সুকল্প দে, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৬ ও কান্দি রাজা মণীন্দ্রচন্দ্র গালর্স স্কুলের রুমানা সুলতানা, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৬৷
৬.ষষ্ঠ স্থান: গোঘাট হাইস্কুলের সোহান দে, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৫, রামপুর হাইস্কুলের সাবর্ণী চট্টোপাধ্যায়, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৫ ও বর্ধমান বিদ্যার্থী ভবন গার্লস হাইস্কুলের সাহিত্যিকা ঘোষ, অলিগঞ্জ ঋষি রাজনারায়ণ বালিকা বিদ্যালয় হাইস্কুলের সুর্পণা সাহু ও হাওড়ার মাহিয়ারি কুণ্ডুচৌধুরি ইনস্টিটিউশনের অঙ্কণ চক্রবর্তী৷
৭. সপ্তম স্থান: ইলাদেবী গালর্স হাইস্কুলের গায়েত্রী মোদক, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৪, ঘাটাল বিদ্যাসাগর হাইস্কুলের অনীক চক্রবর্তী ও বেদীভবন রবীতীর্থ বিদ্যালয়ের সপ্তর্ষী দত্ত, প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৪৷
৮. কোচবিহারের সীতলকুচি হাইস্কুলের শাহানওয়াজ আলাম ও গঙ্গারামপুর হাইস্কুলের সায়ন্তন বসাক, বাঁকুড়া বিবেকান্দ শিখ্যানিকেতন হাইস্কুলের অর্কপ্রভ সাহানা ও কৌশিক সাঁতরা৷বাঁকুড়া মিশন গার্লস হাইস্কুলের সুদীপ্তা ধবল, বাঁকুড়া জেলা স্কুলের সায়ন্তন দত্ত, বাঁকুড়া রামহরিপুর রামকৃষ্ণ মিশন হাইস্কুলের পৃথ্বীশ কর্মকার, আরামবাগ গার্লস হাইস্কুলের দেবলীনা দাস, বর্ধমান বিদ্যার্থী ভবন হাইস্কুলের অয়ন্তিকা মাঝি, কাটোয়া কাশীরাম দাস ইনস্টিটিউশনের পুষ্কর ঘোষ ও আমতলা নিবেদিতা বালিকা বিদ্যালয়ের সেমন্তী চক্রবর্তী৷ সকলের প্রাপ্ত নম্বর ৬৮৩৷

৯.নবম স্থান: শীলবাড়ি হাট হাইস্কুলের জায়েশ রায়, জলপাইগুড়ি আশালতা বসু বিদ্যালয়ের অনুষ্কা মণ্ডল, বাঁকুড়া জেলা স্কুলের সৌগত পাণ্ডা, বাঁকুড়া রামহরিপুর রামকৃষ্ণ মিশন শুভদীপ কুণ্ডু , বীরভূমের BKTPP প্রবীর সেনগুপ্ত বিদ্যালয়ের সৌকর্ষ বিশ্বাস, কাঁথি হাইস্কুলের প্রত্যুষ করণ, জ্ঞানদীপ বিদ্যাপীঠ হাইস্কুলের অরুণিমা ত্রিপাঠি, নরেন্দ্রপুর রামকৃষ্ণ মিশনের অভিনন্দন জানা ও ঐকিক মাঝি৷ সকলের প্রাপ্ত নম্বর ৬৮২।
১০. রায়গঞ্জ গার্সল হাইস্কুলের সঞ্চারি চক্রবর্তী, মালদহের বার্লো গার্লস হাইল্কুলের সায়ন্তিকা দাস, রামকৃষ্ণ মিশন বাঁকুড়া সৌধ্য হাজরা, সারদা বিদ্যাপীঠ হাইস্কুলের সাক্ষী কুণ্ড, বিবেকানন্দ শিক্ষা নিকেতনের রিমা চৌধুরি, ধনিয়াখালি মহামায়া বিদ্যামন্দিরেপ সৌম্যদীপ দত্ত, সিউড়ির নেতাজী বিদ্যাভবনের অরিত্র মহড়া, মেমারির বিদ্যাসাগর মেমোরিয়াল ইনস্টিটিউশনের সৌম্যদীপ ঘোষ, পশ্চিম বর্ধমানের রামকৃষ্ণ আশ্রম বিদ্যাপীঠের সায়ন্তিকা রায়, ঝাড়গ্রামের বন্দগোড়া অঞ্চল বিদ্যালয়া শুভদীপ মাঝি, রহড়া ভবনাথ ইনস্টিটিউশনের সহেলি রায় ও দেবমাল্য সাহা, বিরাটি বিদ্যালয়ের প্রত্যষা মজুমদার , হাবড়া কামিনী কুমার গার্লস হাইস্কুল অঙ্কিতা কুণ্ডু ও যাদবপুর বিদ্যাপীঠের সোহম দাস৷ সকলের প্রাপ্ত নম্বর ৬৮১৷
মঙ্গলবার মাধ্যমিকের ফল প্রকাশের সময় মধ্যশিক্ষা পর্ষদের সভাপতি কল্যাণময় গঙ্গোপাধ্যায় জানান, এবারের মাধ্যমিকের পাশের হার ৮৬.০৭ শতাংশ। যা মাধ্যমিকের ইতিহাসে সর্বোচ্চ। পাশাপাশি পর্ষদ সভাপতি এদিন জানিয়েছেন, এবারের মাধ্যমিকে প্রথম স্থানাধিকারী সৌমেন দাসের প্রাপ্ত নম্বর ৬৯৪ (৯৯.১০%), এটিও একটি রেকর্ড।
এবারের মাধ্যমিকে পাশের হার সর্বাধিক পূর্ব মেদিনীপুর জেলায় ৯৬.১০ শতাংশ। পাশের হারে দ্বিতীয় স্থানে রয়েছে কলকাতা (৯২.১৩%) এবং তৃতীয় স্থানে রয়েছে পশ্চিম মেদিনীপুর (৯১.৭৮%)। এবারও মাধ্যমিকে ছাত্রদের তুলনায় ছাত্রীদের পাশের হার বেশি। গত বছরের তুলনায় এবছর ছাত্রীদের পাশের হার বেড়েছে ১ শতাংশ। পাশাপাশি, গত বছরের মাধ্যমিকের তুলনায় এবছর প্রায় ১২ শতাংশ বেড়েছে ছাত্রী পরীক্ষার্থীর সংখ্যা।
পর্ষদের তরফে জানানো হয়েছে এবছর মাধ্যমিক পরীক্ষায় বসার জন্য নাম রেজিস্ট্রেশন করেছিল ১০ লক্ষ ৬৬ হাজার ১৭৫ জন। পরীক্ষায় বসেছিল ১০ লক্ষ ৫০ হাজার ১৯৭ জন। পাশ করেছে ৮ লক্ষের কিছু বেশি পরিক্ষার্থী। এবছরের মাধ্যমিক পরীক্ষা শুরু হয়েছিল ১২ ফেব্রুয়ারি। শেষ হয় ২২ ফেব্রুয়ারি। পরীক্ষা শেষের ৮৮ দিনের মাথায় প্রকাশিত হল এবারের মাধ্যমিকের ফল। তবে পরের বছরের মাধ্যমিকের নির্ঘণ্ট এদিন পর্ষদের তরফে প্রকাশ করা হয়নি। সফল মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের এদিন শুভেচ্ছা জানিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

এছাড়াও চেক করুন

শিলিগুড়ির বিধাননগরে মারতি ভ্যান ও ট্রাকের সংঘর্ষ,আহত তিন

বিশ্বজিৎ সরকার,স্টিংনিউজ করেসপনডেন্ট,দার্জিলিংঃ মঙ্গলবার শিলিগুড়ির মহকুমা পরিষদের অন্তরর্গত ফাঁসিদেওয়া ব্লকের বিধাননগরের মাদাতি এবাকায় মারতি ভ্যান …

Leave a Reply

Your email address will not be published.