Breaking News
Home >> Breaking News >> নবদ্ধীপের চৈতন্য ধাম এলাকায় সাত সকালে মরে পড়ে থাকলেও ফিরে মুখ ঘুরিয়ে নিলেন অমানবিক জনতা

নবদ্ধীপের চৈতন্য ধাম এলাকায় সাত সকালে মরে পড়ে থাকলেও ফিরে মুখ ঘুরিয়ে নিলেন অমানবিক জনতা

কমল দত্ত, নদিয়া: চৈতন্য ধামে অমানবিক নবদ্ধীপবাসী।ঘড়িতে তখন সকাল সাতটা। অচৈতন্য অবস্থায় পড়ে নবদ্বীপ শহরের অন্যতম ব্যস্ত এলাকা বড়ালঘাট বাজার রোড এলাকায় এক ব্যক্তি। দীর্ঘ চার ঘন্টা মৃত্যুর সঙ্গে লড়াইয়ের পর মৃত্যু হল তার। খবর পেয়ে নবদ্বীপ থানার আই সি সুবীর কুমার পাল ঘটনাস্থলে ছুটে আসেন। পুলিশ দেহটি নবদ্বীপ স্টেট জেনারেল হাসপাতালে পাঠালে, সেখানকার চিকিৎসকেরা ওই ব্যক্তি কে মৃত বলে ঘোষণা করেন। স্থানীয় সূত্রে জানতে পারা যায়, বুধবার শুভ অক্ষয় তৃতীয়ার দিন শহরের ব্যাস্ততম বড় বাজার এলাকায় হার্ডওয়ার ব্যবসায়ী সুনীল মোদকের দোকানের বারান্দায় পড়ে ছিলেন ওই ব্যক্তি। বছর ৪০ এর ওই ব্যক্তি অচৈতন্য অবস্থায় পরে থাকার পর তার মুখ দিয়ে ক্রমাগত গেজলা বের হতে থাকে। সেসময় ব্যাস্ততম বাজার রোড এলাকায় বহু পথচারী ঘাড় ঘুরিয়ে একটি বার দেখে চলে যান। কিন্তু তারা একবারও তাদের মানবিকতা বোধটুকু হল না।সাধারন মানুষ এতটাই অমানবিক যে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়া মানুষটিকে বাঁচাতে হাসপাতালে পৌঁছনো তো দূরের কথা, নিদেনপক্ষে থানাতেও খবর দেওয়ার প্রয়োজনটুকু মনে করলেন না। চোখের সামনে এভাবে একটি প্রান চলে যাওয়ায় অভিজ্ঞমহল আবারও মানুষের মূল্যবোধ নিয়ে কাঠগড়ায় দাড় করালেন শহরবাসীকে। এহেন আচরণে স্তম্ভিত শহরের নাগরিক সমাজ। এদিকে ওই ব্যক্তির পরিচয় জানতে বিভিন্ন থানা এলাকায় খোঁজ শুরু করেছে নবদ্বীপ থানার পুলিশ। পরে তার নাম ও পরিচয় জানা গেছে। মৃত ব্যক্তির নাম অশোক মান্না(৪৭)। তার বাড়ী শহরের ৩নং ওয়ার্ডে মাথাপুর রোডে। বাড়ীতে তার স্ত্রী ও এক পালিত পুত্র আছে। জানা গেছে তিনি গত রাত থেকে নিখোঁজ ছিলেন।

এছাড়াও চেক করুন

শিশু আলয় কেন্দ্রের শুভ উদবোধন হল নদিয়ার বেশকিছু সেন্টারের

নিজস্ব প্রতিনিধি ,নদিয়াঃ মহত্মা গান্ধী জাতীয় গ্রামীন কর্মনিচশ্চয়তা প্রকল্পের আওতাভুক্ত অঙনারী কেন্দ্রের অর্থাৎ শিশু আলয় …

Leave a Reply

Your email address will not be published.