Breaking News
Home >> Breaking News >> তৃণমূল নেত্রীর সম্পর্কে কটূক্তি করায় বহিষ্কৃত কোচবিহারের এক পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য

তৃণমূল নেত্রীর সম্পর্কে কটূক্তি করায় বহিষ্কৃত কোচবিহারের এক পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য

মনিরুল হক, কোচবিহারঃ স্বয়ং মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় সম্পর্কে প্রকাশ্যে কটূ কথা বলে বহিষ্কৃত হলেন ছুটকাবাড়ির পঞ্চায়েত সমিতির সদস্য রশিদ আলি মোল্লা। গতকালই একটি বস্ত্র বিতরণের অনুষ্ঠান মঞ্চে হাজির হয়ে তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় সাংবাদিকদের জানিয়ে দিয়েছিলেন দলের রাজ্য নেতৃত্বকে অবমাননা করার জন্য বহিষ্কার করা হলো রশিদুল মোল্লা নামের ওই নেতাকে।

কোচবিহার জেলাপরিষদের বোর্ড গঠনের দিন সংবাদ মাধ্যমের সামনে ক্ষোভে ফেটে পড়েছিলেন রশিদ। নানান অসৌজন্যমূলক কথা বলেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী তথা দলনেত্রী সম্পর্কে।
কোচবিহার জেলার বিভিন্ন রাজনৈতিক মহলের ধারনা, রশিদ আলি মোল্লা জলিল আহমেদের অনুগামী। আব্দুল জলিলকে সভাধিপতি না করাতেই ক্ষোভে ফেটে পড়েন রশিদ। যেখানে দাঁড়িয়ে রশিদ মমতা সম্পর্কে ওই মন্তব্য করছেন, ভিডিওতে শোনা যাচ্ছে তার পিছনেই শ্লোগান চলছে, “রবি ঘোষের চামড়া, গুটিয়ে নেব আমরা।”

তৃণমূলের পঞ্চায়েত সমিতির নেতার প্রশ্ন, সভাধিপতি পদে যদি এসসি ক্যান্ডিডেটকেই বসাতে হয়, তাহলে পদটিকে কেন জেনারেল করা হল। কোচবিহারে তৃণমূলের জলিল আহমেদ গোষ্ঠীর দাবিকে উপেক্ষা করে উমাকান্ত বর্মনকে সভাধিপতি পদে বসানো হয়েছে। সভাধিপতি পদে উমাকান্ত বর্মনের নাম ঘোষণার পরেই প্রবল বিক্ষোভ দেখান জলিল আহমেদ গোষ্ঠীর লোকজন।

নেতা-মন্ত্রীদের ছবি পোড়ানো হয়, দেওয়া হয় জুতোর মালাও। সেই ঘটনার পরিপেক্ষিতে গতকাল এক দুর্গাপূজায় মণ্ডপে গিয়ে তৃণমূলের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায় রশিদ আলি মোল্লাকে দল থেকে বহিষ্কার করার কথা ঘোষণা করেন তিনি।

এছাড়াও চেক করুন

শীতের আগে ঝাড়গ্রামবাসীকে আনন্দ দিতে হাজির কোহিনুর সার্কাস

ঝাড়গ্রাম:- ঝাড়গ্রামে শুরু হলো কোহিনুর সার্কাস। আগামী একমাস দুপুর ১টা , বিকেল ৪টা ও সন্ধ্যা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.