Breaking News
Home >> Breaking News >> মহালয়া ‘র পূর্ণ প্রাতে দেবীপক্ষের সূচনা, গঙ্গার ঘাটে হাজারো মানুষের তর্পণ

মহালয়া ‘র পূর্ণ প্রাতে দেবীপক্ষের সূচনা, গঙ্গার ঘাটে হাজারো মানুষের তর্পণ

কল্যাণ অধিকারী, স্টিং নিউজ করেসপনডেন্ট, হাওড়া: মহালয়া’র পূর্ণ প্রাতে পিতৃপক্ষের অবসান ঘটিয়ে মর্ত্যলোকে সূচনা হল দেবীপক্ষের। সোমবার ভোরে রেডিও তে বীরেন্দ্রকৃষ্ণ ভদ্রের সংস্কৃত স্তোত্রপাঠে দেবীর আগমন-বার্তা শুরু হয় মর্তে।

ভোরের আকাশে আলো ফোঁটার আগেই গঙ্গার ঘাটে পিতৃ পুরুষের উদ্দেশ্যে তর্পণ করতে চলে আসেন বহু মানুষ। সকালের আলো ফোটার পরে বাবুঘাট, বিচালিঘাট, মল্লিকঘাট ও হাওড়ার বিভিন্ন ঘাটে হাজার হাজার মানুষ ভিড় জমান। এক বুক জলে নেমে পুরোহিতের সঙ্গে মন্ত্রপাঠ করে। পূর্বপুরুষদের আত্মার শান্তির উদ্দেশ্যে তর্পণ করেন।

গঙ্গার ঘাটে তর্পণ উপলক্ষে পুলিশি নিরাপত্তা ছিল কঠোর। নৌকা থেকে লক্ষ্য রাখা হচ্ছিল। ছিল পুলিশি লঞ্চে টহলদারি। এছাড়া গঙ্গাবক্ষে ঘুরে বেড়ানো বাইক জলযানেও নজরদারি চালানো হয়। জোয়ারের সময় জলস্তর বেড়ে যায়। যে কারণে ওই সময় কেউ গঙ্গায় না থাকে তাও এ দিন প্রচার করা হয়।

অন্যদিকে দেবীর মৃন্ময়ী মূর্তিতে চক্ষুদানের মধ্য দিয়ে শহরের একাধিক এলাকার প্রতিমায় শেষ তুলির ছোঁয়া পড়তে শুরু করেছে। আজ থেকেই শহরের বিভিন্ন মন্ডপে প্রতিমা মাতৃ আরাধনার জন্য রওনা দেবে। মহালয়ার এই পূর্ণ লগ্ন থেকেই বিভিন্ন পুজো কর্মকর্তাদের চোখের ঘুম একপ্রকার বিদায় নেবার জোগাড়। হাওড়া শহরের কদমতলা, লিলুয়া, রামরাজাতলা সহ বিভিন্ন এলাকার মৃৎশিল্পী গণ তুলির এক টানে দেবী দুর্গার চোখ আঁকা শুরু করেছেন।

হাওড়ার প্রসেনজিত দাস এবার প্রথম দুর্গা প্রতিমা বানিয়েছেন। এর আগে ক্ষীর দিয়ে বিভিন্ন প্রতিমা গড়েছেন। ওঁর কথায়, মহালয়ার আগে থেকেই প্রতিমা চলে গিয়েছে মন্ডপে। আজ তুলির শেষ টান পরবে চোখে। বৃষ্টির ভ্রুকুটি মাথার উপরে একটু চাপ দিয়ে রেখেছিল। এবার ভালোয় – ভালোয় পূজা কাটলেই স্বস্তি।

এছাড়াও চেক করুন

শীতের আগে ঝাড়গ্রামবাসীকে আনন্দ দিতে হাজির কোহিনুর সার্কাস

ঝাড়গ্রাম:- ঝাড়গ্রামে শুরু হলো কোহিনুর সার্কাস। আগামী একমাস দুপুর ১টা , বিকেল ৪টা ও সন্ধ্যা …

Leave a Reply

Your email address will not be published.